মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৮ এপ্রিল ২০১৯

ঐতিহাসিক বড় সরদারবাড়ি


প্রাচীন রাজধানী সোনারগাঁস্থ বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের ঐতিহাসিক বড় সরদারবাড়ির রেস্টোরেশন কাজ সমাপ্ত হয়েছে। গত ১ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে ঐতিহাসিক বড় সরদারবাড়ির শুভ উদ্বোধন করেন।
ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট: বড় সরদারবাড়ি মুঘলস্থাপত্য, বারভূইয়ার অলঙ্করণশৈলী, ব্রিটিশ কলোনিয়াল ও হিন্দু স্থাপত্যের ঐতিহ্যিক স্থাপনার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। পর্যটকদের কাছে এ ভবনটি আকর্ষণীয় নিদর্শন হিসেবে আদৃত। একই ভবনে চারটি জেনারেশনের স্থাপত্যশৈলী অবলোকন বাংলাদেশে এক বিরল ঘটনা। বড় সরদারবাড়ির আয়তন ২৭ হাজার ৪০০ বর্গফুট। আলোচিত ভবনে সর্বমোট কক্ষসংখ্যা ৮৫টি। চুন-সুরকির গাঁথুনিতে বড় সরদারবাড়ি সোনারগাঁও অঞ্চলের স্মৃতিঋদ্ধ ইমারতের দীপ্যমান স্বাক্ষর করে আসছে। বাংলার অনন্য স্থাপত্যশৈলী এ ভবনের পরতে পরতে অবলোকন করা যায়। 
উল্লেখ্য যে, কোরিয়া ভিত্তিক বহুজাতিক কোম্পানি ইয়াংওয়ান ও কোরিয়া ইপিজেড এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মি. কিহাক সাং ঐতিহাসিক বড় সরদারবাড়ির প্রকৃত সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে রেস্টোরেশন কাজ পরিচালনা করেছেন। 

প্রকল্প শুরুর কথা: স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে সরকার সরদারবাড়ি খ্যাত প্রাচীন ইমারতসহ ভূমি অধিগ্রহণ করে। আশির দশকের শেষদিকে প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর কর্তৃক আংশিক সংস্কারের পর এটিতে বাংলাদেশের বিষেশায়িত লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর গড়ে তোলা হয়। দীর্ঘদিন আলোচিত ভবনের সংস্কার কাজ করা হয়নি। এ পরিপ্রেক্ষিতে প্রাচীন রাজধানীর স্মৃতি বিজড়িত বড় সরদারবাড়ি পরিদর্শনে এর জীর্ণ দশা দেখে ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের সাথে এর প্রকৃত সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে কথা বলেন মি. কিহাক সাং। 
বিগত ০৩ জানুয়ারি ২০১২ খ্রি. গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং দক্ষিণ কোরিয়ার ইয়াংওয়ান করপোরেশনের মধ্যে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের বড় সরদারবাড়ির রেস্টোরেশন কাজের ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। সামাজিক দায়িত্বপূর্ণ দায়বদ্ধতার অংশ হিসেবে বাংলাদেশে এককভাবে সবচেয়ে বড় বিদেশি বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান কোরিয়া ভিত্তিক বহুজাতিক কোম্পানী অনুদান হিসেবে ইয়াংওয়ান করপোরেশনের চেয়ারম্যান ও কোরিয়া ইপিজেড এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিশিষ্ট পৃষ্ঠপোষক ও শিল্পপতি মি. কিহাক সাং বড় সরদারবাড়ি যথাযথ বৈজ্ঞানিক উপায়ে সংরক্ষণ করার মাধ্যমে এর রাজসিকতা ফিরিয়ে আনতে অনন্য উদ্যোগ নিয়েছেন। 
বড় সরদারবাড়ি সোনারগাঁও অঞ্চলের ঋদ্ধিমান স্থাপত্য নিদর্শন হিসেবে সমাদৃত হয়ে আসছে। রেস্টোরেশন সমাপ্তির পর এর মাধ্যমে আমাদের অতীত ইতিহাস-ঐতিহ্যের সঙ্গে নতুন প্রজন্মের মেলবন্ধন সৃষ্টি হবে। একই সাথে প্রাচুর্যময় আভিজাত্য ও সংস্কৃতির গুরুত্বপূর্ণ পীঠস্থানকে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের কাছে উপস্থাপনের রাজসিক দ্বার উন্মুক্ত হবে।

প্রবেশ ফি-

দেশি-১০০ টাকা

বিদেশি-২০০ টাকা

পরিদর্শন সময়-শুধুমাত্র রবি ও সোমবার

সকাল ১০.০০ টা থেকে বিকাল ৫.০০ টা পর্যন্ত

ফটোগ্যালারী (ক্লিক করুন)


Share with :

Facebook Facebook